| |

মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে কোন আপোস নয় তাই স্কুলের নাম পরিবর্তন করে শহীদ আব্দুর রহমান বিদ্যালয় করা হবে

আপডেটঃ 10:44 pm | February 12, 2017

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ গতকাল ১২ফেব্রয়ারী বইলর রহমানিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান। প্রধান অতিথি জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠান ক্রীড়ানুষ্ঠান উদ্বোধন করেন বলেন, ত্রিশাল উপজেলার স্কুল গুলি চমৎকার। বর্তমান সরকার শিক্ষা ব্যবস্থার উন্নয়নে কাজ করে যাচ্ছে স্কুল গুলিকে দেখলে তার প্রমান মিলে। বইলর স্কুলের ছাত্রীরা মেধার দিক দিয়ে ছঅত্রদের চাইতে এগিয়ে তা পরিক্ষার ফলাফলে প্রমানিত হয়েছে। নারীরা শিক্ষিত না হলে জাতি শিক্ষিত হতে পারবে না। তাই জননেত্রী শেখ হাসিনা নারীদের শিক্ষার ব্যাপারে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে কাজ করছে। তিনি আরো বলেন, মুক্তিযোদ্ধাদের নিয়ে কোন আপোস নয় তাই স্কুলের নাম পরিবর্তন করে শহীদ আব্দুর রহমান বিদ্যালয় করা হবে। তিনি বলেন, স্কুলের নামটি মুখে আনতে লজ্জা হয়, কারন স্বাধীনতা বিরোধীদের নামে স্বাধীন বাংলায় কোন প্রতিষ্ঠান থাকতে পারেনা। ময়মনসিংহের অন্বেষা স্কুল তার প্রমান। তিনি বলেন, এই স্কুলটির উন্নয়নের জন্য যতটুকু করা সম্ভ^ব ততটুকু করবো। বিশেষ অতিথি ছিলেন দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ পত্রিকার সম্পাদক আওয়ামীলীগ নেতা প্রদীপ ভৌমিক, জেলা পরিষদ সদস্য আব্দুল্লাহ আল মামুন উজ্জল, মো: মহিবুল হক, ত্রিশাল উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো: আশরাফুল ইসলাম, ২নং বইলর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান মুকুল, আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক আওয়ামীলীগ নেতা মো: আনোয়ারুল হক রিপন, বইলর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ শাখার সভাপতি মো: আলতাফ হোসেন, সাধারন সম্পাদক মো: শাহজাহান কবীর, বইলর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মো: শফিকুল ইসলাম সরদার, আরো উপস্থিত ছিলেন আওয়ামীলীগ নেতা মো: মকবুল হোসেন খোকন, মো: আসলাম খান পাঠান প্রমুখ। উক্ত অনুষ্ঠানটির সভাপতিত্ব করেন সাবেক সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব আব্দুল মতিন সরকার। ক্রীড়া পরিচালনা করেন বিদ্যালয়ের শরীরচর্চা শিক্ষক মো: আব্দুল মোতালেব। সাবেক এমপি স্কুল ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব মতিন সরকার বলেন, স্কুলের উন্নয়নের জন্য আমরা কাজ করে যাচ্ছি। ভবিষ্যতে জেলা পরিষদের সহযোগিতায় বাউন্ডারী দেয়াল সহ বাকী স্কুল ভবন সংস্কারের কাজ গুলিও সম্পন্ন করব। ইনশাল্লাহ জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান অধ্যাপক ইউসুফ খান পাঠানের সহযোগিতায় তা সম্ভব হবে। বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সহ অতিথিদের ক্রেষ্ট প্রদান করে সম্মানিত করেন।

ব্রেকিং নিউজঃ