| |

ময়মনসিংহ শিল্প ও বানিজ্য মেলায় ক্রেতাদর্শনাথীদের ভীড় শিশুদের বিনোদনের জন্য আলাদা জোন সর্বমহলের প্রশংসা

আপডেটঃ 12:25 am | February 14, 2017

Ad

মো: নাজমুল হুদা মানিক ॥ দি ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্সের উদ্যোগে ময়মনসিংহ শিল্প ও বানিজ্য মেলায় শিশুদের আনন্দ দেওয়ার জন্য রয়েছে একটি আলাদা জোন। ময়মনসিংহে অতীতে কোন মেলা বা প্রদর্শনীতে এ ধরনের ব্যবস্থা শিশুদের জন্য কেউ করেনি। মেলায় রয়েছে বিভিন্ন ধরনের রাইডার,ট্রয় ট্রেন,নাগরদোলা সহ অন্যান্য আয়োজন । নিজ শহরে হাতের কাছে এ ধরনের সুবিধা পেয়ে আনন্দ উপভোগ করতে পেরে শিশুরা ভীষন খুশি ও আনন্দিত। তাই প্রতিনিয়ত বানিজ্য মেলায় শিশুদের ভীড় বিকাল থেকেই লেগে থাকে। শুধু শিশুদের জন্য নয় বড়দের জন্যও আছে রকমারি পণ্যের সমারোহ। গৃহস্থালী সামগ্রী ক্রোকারিজ নিত্য প্রয়োজনিয় সামগ্রী কাপড়,রেডিমেট গার্মেন্টেস সামগ্রী, রয়েছে মহিলা শিল্প উদ্যেক্তাদের বিভিন্ন স্টল যাতে রয়েছে হস্ত নির্মিত বিভিন্ন সামগ্রী, বিছনার চাদর,জুতা,চশমা সহ বিভিন্ন ধরনের খাদ্য সামগ্রী যার মধ্যে রয়েছে রকমারী আচার,বিস্কুট,বাদাম ও তিলের তৈরী মিষ্টি সামগ্রী চটপটি,ফুসকা সহ খাদ্য সামগ্রী যা মেলায় আগতদের আকৃষ্ট করে। দামে সস্তা ও গুনগত মান ভালো হওয়াই ক্রেতারা সন্তুষ্ট চিওে পণ্য সামগ্রী ক্রয় করে বানিজ্য মেলা থেকে। বানিজ্য মেলায় রয়েছে পরিবারের সবাইকে নিয়ে উপভোগ করার মত সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান যেখানে রুচি সম্মত অশ্লীলতা বর্জিত বিভিন্ন ধরনের নাচ,গান ও কৌতুক দেখানো হয়। মেলায় আগত ক্রেতা ও দর্শনার্থীরা মেলা থেকে প্রয়োজনীয় দ্রব্য কিনে মন্তব্য করতে শোনা গেছে, এখানে মান সম্মত ও ক্রয় ক্ষমতার মধ্যে জিনিষ পাওয়া যায় বিধায় আমরা আমাদের প্রয়োজনীয় জিনিস কিনতে পারছি তাতে আমরা সন্তুষ্ট। শিল্প ও বানিজ্য মেলা সমন্ধে যে সমস্ত নেতিবাচক কথা শোনা যাচ্ছে এবং কয়েকটি পত্রিকায় যা প্রকাশিত হয়েছে সরজমিনে তদন্ত করে তার সত্যতা খোজে পাওয়া যায়নি। দি  চেম্বার অব কমার্স এর উদ্যোগে ময়মনসিংহ শিল্প ও বানিজ্য মেলাটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে তার সার্বিক দায় দায়িত্ব অবশ্যই দি ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্স এর উপর থাকে। ২/১টি পত্রিকায় চেম্বার অব কমার্সের সাবেক পরিচালক শংকর সাহার উদৃতি দিয়ে বলা হয়েছে ময়মনসিংহ বানিজ্য মেলাটি যদিও দি ময়মনসিংহ চেম্বর অব কমার্সের উদ্যোগে অনুষ্ঠিত হচ্ছে কিন্তু চুক্তির মাধ্যমে কিশোরগঞ্জ চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি মজিবুর রহমান বেলালকে পরিচালনার সার্বিক দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তাই দি ময়মনসিংহ চেম্বর অব কমার্সের কোন দায় দায়িত্ব নেই। এ কথাটি সঠিক নয়। তাছাড়া সাবেক পরিচালকরা যেহেতু ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্সের পরিচালনা পর্ষদে নেই তাদের এ ব্যাপারে মন্তব্য করার কোন ক্ষমতা নেই। এটি অনধিকার চর্চা বলে বিবেচিত। চেম্বার অব কমার্সের সাবেক পরিচালক প্রদীপ ভৌমিক এর কাছে ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্স এর সহ সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা বজলুর রহমান জানান, ময়মনসিংহ শিল্প ও বানিজ্য মেলার ব্যাপারে চেম্বার এর কোন দায় দায়িত্ব নেই। যদিও চেম্বার অব কমার্সের উদ্যোগে ময়মনসিংহ শিল্প ও বানিজ্য মেলাটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এ প্রসঙ্গে উল্লেখ থাকে যে, সাবেক পরিচালকরা যেহেতু বর্তমান চেম্বার অব কমার্সের কার্যকরী কমিটিতে নেই তাই তাদের মেলা পরিচালনা সমন্ধে কোন প্রকার মন্তব্য করার অধিকার নেই। তাই এব্যাপারে সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। যাতে করে চেম্বার এর ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন না হয়। চেম্বার অব কমার্সের সাবেক পরিচালক দৈনিক আলোকিত ময়মনসিংহ পত্রিকার সম্পাদক প্রদীপ ভৌমিক বলেন, ময়মনসিংহ শিল্প ও বানিজ্য মেলা সমন্ধে অনেক নেতিবাচক মন্তব্য শুনেছিলাম  কিন্তু সরজমিনে মেলা চলাকালীন সময়ে মেলা পরিদর্শন করে তার সত্যতা খোজে পাইনি। তাছাড়া তিনি বিশ্বাস করেন ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্সের উদ্যোগে যে শিল্প ও বানিজ্য মেলাটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে তাতে কোন প্রকার অনৈতিক কর্মকান্ড সংগঠিত হলে চেম্বার অব কমার্স এর দায়িত্ব এড়িয়ে চলতে পারবেনা। তিনি মনে করেন এ ধরনের কোন ঘটনা ঘটলে ময়মনসিংহ চেম্বার অব কমার্স তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবে। ময়মনসিংহের মহানগরে এমন একটি সুন্দর শিল্প ও বানিজ্য মেলার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করে মেলাটির যাতে ভাবমুর্তি ক্ষুন্ন না হয় তার প্রতি আহবান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, চীন থেকে ঢাকা বানিজ্য মেলায় আগত কয়েকটি প্রতিষ্ঠানের এই মেলায় অংশ গ্রহনের জন্য কথা ছিল কিন্তু অনিবার্য কারনে সেই সমস্ত প্রতিষ্ঠান অংশ গ্রহন করে নাই তাই প্রথমে আন্তর্জাতিক শিল্প ও বানিজ্য মেলা হিসাবে চিহ্নিত করা হলেও পরবর্তীতে ময়মনসিংহ আন্তর্জাতিক শিল্প ও বানিজ্য মেলা থেকে আন্তর্জাতিক শব্ধটি বাদ দেওয়া হয়েছে। এটি দুষের কিছু নয় বলে মেলায় আগত দর্শনার্থীরা মনে করেন।

ব্রেকিং নিউজঃ