| |

জামালপুরে ড্রেজারে বালু উত্তোলণ

আপডেটঃ 7:42 pm | February 20, 2017

Ad

রিয়াজুর রহমান লাভলু ॥ জামালপুরের মেলান্দহ উপজেলার মাহমুদপুর ইউনিয়নের চরগোবিন্দি এলাকার যমুনার শাখা (কেখরাই) নদীর উপর এই ব্রীজটিই শুধু চরগোবিন্দি গ্রামের লোকজন নয় পার্শবর্তী  ইসলামপুর উপজেলার নোয়ারপাড়া  ইউনিয়নের একতা বাজার ও জনতা বাজার, মাদারগঞ্জ উপজেলার চরপাকেরদহ ইউনিয়নের কয়লাকান্দি বাজার, টেংরাকুড়া বাজার, আনন্দ বাজার, নব্যচর বাজার এবং বগুড়া জেলার শারিয়াকান্দি উপজেলার চালুয়াবাড়ি ইউনিয়নের মানিকদার বাজার ও এর আশপাশের এলাকার হাজার হাজার মানুষের যাতায়াতের একমাত্র মাধ্যম।  শুধু তাই নয় বন্যার সময় উপরোল্লেখিত এলাকা গুলোর পানি প্রবাহের এক মাত্র মাধ্যমও এই ব্রীজটিই। সম্প্রতি মাহমুদপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফজলুল হক এর সাথে যোগসাজস করে ঢাকায় কর্মরত চরমাহমুদপুর এলাকার এক পুলিশ সদস্য নিজের পুলিশী চাকুরির প্রভাব খাটিয়ে অবৈধভাবে ব্রীজের নিচ থেকে ড্রেজার দিয়ে বালু উত্তোলন করছেন। ফলে বন্যা ছাড়াই বদ্ধপানিতেই ব্যাপক নদী ভাঙ্গন শুরু হয়েছে। বিষয়টি স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যানের নজরে আসলে তিনি গত ১২ ফেব্রুয়ারি বালু  উত্তোলণ বন্ধ করতে সংশ্লিষ্ট মেম্বার এবং নায়েবকে মৌখিকভাবে ব্যবস্থা নিতে বলেন। এরই প্রেক্ষিতে পরবর্তী দুইদিন ড্রেজারটি বন্ধ রাখার পর পুণরায় বালু উত্তোলণ অব্যাহত রয়েছে। গত বৃহস্পতিবার সরেজমিনে গেলে বালুউত্তোলণকারীরা জানান, এবার যথাযথ কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করেই কাজ করা হচ্ছে। তবে কে কিভাবে ম্যানেজ হয়েছে তার দিকে পরে নজর দিয়ে আগামী বন্যা এবং লোকজনের ভোগান্তির কথা মাথায় রেখে দ্রুত ব্রীজটি রক্ষায় বালু উত্তোলণ বন্ধ করতে জেলা প্রশাসনসহ যথাযথ কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামণা করেছেন এলাকাবাসীরা। উল্লেখ্য যে একই সড়কে প্রায় ১০/১২ বছর আগে একটি ব্রীজ বন্যায় ধ্বসে যায়। দীর্ঘদিন অতিবাহিত হলেও ব্রীজটি সংস্কার না হওয়ায় পরবর্তীতে সেখানে মাটি ভরাট করে রাস্তা করে ফেলা হয়। 

ব্রেকিং নিউজঃ