| |

মাওহা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কর্তৃক সহকারী শিক্ষিকা বহিষ্কার

আপডেটঃ 12:21 am | March 05, 2017

Ad

ইব্রাহিম মুকুট ॥ ময়মনসিংহ এলাকার গৌরীপুর মাওহা উচ্চ বিদ্যালয়ে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের কর্মরত সহকারী শিক্ষিকা শাহিদা আক্তার গত ২৯.৭.১২ ইং তারিখ হতে সুনামের সাথে ছাত্র/ছাত্রীদেরকে পাঠদান করে আসছেন। বিদ্যালয়ে ইংরেজি ও বাংলা বিভাগে শূন্য পদ থাকায় গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম উক্ত দুই শূন্য পদের চাহিদা দিতে গিয়ে সম্পূর্ণ ইচ্ছাকৃত ও ব্যক্তি আক্রোশের বর্শবর্তী হয়ে ইংরেজী ও সমাজবিজ্ঞানের চাহিদা দেন। সে মোতাবেক সরকার কর্তৃক এনটিআরসিএ সমাজ বিজ্ঞান ও ইংরেজী বিষয়ে ইয়াসমিন আক্তার ও কামাল খান নামে দুইজন শিক্ষক নিয়োগ দেন। অথচ সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে শাহিদা আক্তারকে ২০১২ ইং সালে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে এবং ইতিমধ্যে এমপিও ভূক্ত হয়েছে। বর্তমানে ঐ দুইজনের মধ্যে ইংরেজী বিষয়ে নিয়োগপ্রাপ্ত কামাল খানের এমপিও ভূক্তির কাজ সম্পূর্ণ হয়েছে। অপরদিকে সমাজ বিজ্ঞান বিভাগে নিয়োগপ্রাপ্ত ইয়াসমিন আক্তারের নাম এমপিও ভূক্ত করণে জটিলতা দেখা দিয়েছে। কারণ সমাজবিজ্ঞান বিষয়ে ইতিমধ্যেই শাহিদা আক্তারের নাম এমপিও ভূক্ত হয়ে গেছে। বর্তমানে শাহিদা আক্তারকে সম্পূর্ণ উদ্দেশ্যে প্রণিত ভাবে তার নিয়োগপত্র সহ সকল মূল কাগজের সনদপত্র প্রধান শিক্ষকের কাছে জমা দেওয়ার জন্য চাপ দেওয়া হয়। এই ব্যাপারে প্রধান শিক্ষকের কাছে কারণ জানতে চাইলে তিনি তাকে হুমকি দিয়ে বলেন যে, আপনার কাগজপত্র জমা না দিলে আমি আপনাকে বহিস্কার করে দিব। এমনও বলেন যে, সমাজবিজ্ঞানের পরিবর্তে আপনাকে বাংলায় নিয়োগ দেওয়া হবে। সহকারী শিক্ষিকা শাহিদা আক্তার প্রধান শিক্ষকের এই মিথ্যা প্রলোভন বুঝতে পেয়ে তাহার মূল কাগজপত্র জমা না দিয়ে স্ক্যানকপি  জমা দেয়। এতে প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম তার প্রতি ক্ষিপ্ত হয়ে কোন প্রকার কারণ ছাড়াই ১.৩.১৭ ইং তারিখে সাময়িক ভাবে বহিষ্কার করেন। যার প্রতিবাদে ৪.৩.১৭ ইং তারিখ স্কুলের সকল ছাত্র/ছাত্রী, অভিভাবক ও এলাকার গন্যমান ব্যক্তিবর্গ নিজ উদ্যোগে সকাল ১০.৩০ ঘটিকায় ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে বহিষ্কারকৃত শিক্ষিকা শাহিদা আক্তারকে পুন:বহাল করার প্রতিবাদে স্কুল প্রাঙ্গনে এক বিশাল মানববন্ধন হয়। মানববন্ধন কালে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনের বাহিরে চলে গেলে গৌরীপুর থানা থেকে পুলিশ ইন্সপেক্টর শাহজালাল এসে ছাত্র/ছাত্রীদেরকে বিষয়টি খতিয়ে দেখবে এই আশ্বাস দিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

ব্রেকিং নিউজঃ