| |

শেরপুর সীমান্তে বোরো ফসলে পোকার আক্রমনে কৃষকেরা দিশেহারা

আপডেটঃ 8:26 pm | March 08, 2017

Ad

মোঃ জয়নাল আবদিন, ঝিনাইগাতী ॥ শেরপুর জেলার সীমান্ত অঞ্চলের সিংহভাগ লোক কৃষক। অত্র অঞ্চলের অধিকাংশ পরিবার কৃষি ফসল উৎপাদন করে তাদের জীবন-জীবিকা চালায়। তাদের প্রধান ফসল ধান, পাট ও নানা জাতের শাক-সবজি। উৎপাদিত ফসল দিয়ে তাদের বছরের খাদ্য চাহিদা পূর্ণ করে এবং বর্ধিত ফসল বাজারে বিক্রি করে অন্যান্য চাহিদা মেটায়। উল্লেখ্য, ধানের বাজার ভাল থাকায় বোরো চাষিরা বিগত বছরের চেয়ে এবছর অত্র জেলায় লক্ষমাত্রার চেয়ে বেশী জমিতে ধান চাষ করেছে। যদি উক্ত ফসল কৃষকরা সুষ্ঠ ভাবে ঘরে তুলতে পারে। তাহলে বিগত সময়ের কৃষকদের ঋণ-দফা পরিশোধ করার প্রত্যাশা নিয়ে ব্যাপক ভাবে বোরো চাষ করেছে। চলতি বোরো মৌসুম চাষাবাদ করে কৃষকেরা সবেমাত্র নিরানি ও সার প্রয়োগের কাজ সম্পন্ন করেছে। কিন্তু ইতিমধ্যেই চলতি ফসল বোরো ধানে বিভিন্ন প্রকার পোকা আক্রমণ করায় কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। কৃষকরা ফসল রক্ষায় নানা প্রকারের বিষ প্রয়োগ করে তেমন সুফল পাচ্ছে না। গত ২/৩ সপ্তাহ যাবৎ বিভিন্ন ধরণের পোকার আক্রমন। মাজরা পোকা, সুলসুরি পোকা, লেদা পোকাসহ ধান গাছে আক্রমণ করছে। ফলে ধান গাছে পচন ধরায় ধানগাছ নিষক্রিয় হয়ে যাচ্ছে। এ ব্যাপারে কৃষি কর্মকর্তা আলহাজ্ব মো. কোরবান আলী, কৃষকদের পোকা দমনের জন্য বিভিন্ন ঔষধ প্রয়োগ করার পরামর্শ দিয়েছে। চলতি বোরো ফসল পোকার আক্রমণের হাত থেকে রক্ষা না হলে অত্র এলাকার দরিদ্র কৃষকদের সর্বনাশ হয়ে যাবে। তাছাড়াও বোরো ফসল উৎপাদনের লক্ষমাত্রা অর্জিত না হওয়ার আশংকা দেখা দিতে পারে।

ব্রেকিং নিউজঃ