| |

ঈশ্বরগঞ্জে ক্যাবল ব্যবসা নিয়ে উত্তেজনা

আপডেটঃ 8:25 pm | March 09, 2017

Ad

ঈশ্বরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জে পাইরেসির মাধ্যমে এবং বাইরে থেকে সংযোগ এনে অবৈধ ভাবে ক্যাবল ব্যবসা চালানোর অভিযোগ উঠেছে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এদিকে স্বীকৃত একটি ক্যাবল অপারেটরের কাছ থেকে ফিড অপারেটর নিয়োগ পেয়ে একই এলাকায় ক্যাবল ব্যবসা শুরু করতে যাওয়ায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

উপজেলার উচাখিলা ইউনিয়নের গত কয়েক বছর ধরে পাইরেসির মাধ্যমে অবৈধ ভাবে এবং ময়মনসিংহ থেকে মাল্টি সংযোগ এনে ক্যবল ব্যবসা চালাচ্ছেন আবু সাঈদ নামের এক ব্যক্তি। মন্ডল ক্যবলস নামের প্রতিষ্ঠানটি উচাখিলাসহ মাইজবাগের লক্ষ্মীগঞ্জ, রাজীবপুর, তারুন্দিয়া, বড়হিত ও মগটুলা এলাকাতে নিজের সংযোগ দিয়েছে। এদিকে সম্প্রতি ঈশ্বরগঞ্জ পৌর এলাকা থেকে এমআরএম স্যাটেলাইট উচাখিলা ইউনিয়নে নিজাম উদ্দিন নামে একজন ফিড অপারেটর নিয়োগ করে। উচালিখা এলাকায় এমআরএম স্যাটেলাইটের কার্যক্রম শুরু করাকে ঘিরে দুই গ্র“প মুখোমুখি অবস্থান নেয়। এমআরএম স্যাটেলাইট বিধি মেনে ফিড অপারেটর নিয়োগ করলেও অবৈধ ভাবে ক্যাবল ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে মন্ডল ক্যাবল। এর মধ্যে মন্ডল ক্যবল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, জেলা প্রশাসক ও সংশি¬ষ্ট দপ্তরে ক্যাবল লাইসেন্স পাওয়ার জন্য আবেদন করে। কিন্তু অনুমতি পাওয়ার আগেই অবৈধ ভাবে বাইরে থেকে সংযোগ এনে ক্যবল ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন আবু সাঈদ। সরেজমিন আবু সাঈদের মন্ডল ক্যাবলসের কন্ট্রোল রুমে গেলে তার ভাতিজা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, তাদের কন্ট্রোল রুম বন্ধ। ময়মনসিংহ থেকে মাল্টি সংযোগ এনে তারা এলাকায় ক্যাবল ব্যবসা চালাচ্ছেন। এদিকে উচাখিলা এলাকায় বাইরে থেকে সংযোগ এনে ক্যাবল ব্যবসা চালানোর ফলে এমআরএম ক্যাবলসের চরম আর্থিক ক্ষতি হচ্ছে। লিখিত অভিযোগে অবৈধ ভাবে চলা মন্ডল ক্যাবলসের যাবতীয় কার্যক্রম বন্ধের দাবি জানানো হয়। গত ৬ মার্চ ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দপ্তরে অভিযোগটি দায়ের করা হয়।

এদিকে ২০০৬ সালের গেজেট উলে¬খ রয়েছে, লাইসেন্স প্রাপ্ত না হয়ে ডিস্ট্রিবিউটর বা সেবা প্রদানকারী হিসেবে কোনো ব্যক্তি ক্যাবল ব্যবসার কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারবে না। কিন্তু আইনের লঙ্ঘণ করে শুধু মাত্র লাইসেন্স এর জন্য আবেদন করেই ক্যবল ব্যবসা চালানোয় তা বন্ধের দাবি জানিয়েছেন এমআরএম ক্যাবল প্রতিষ্ঠানের পরিচালক মো. মজিবুর রহমান।

উচাখিলা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মঞ্জুরুল হক বলেন, ক্যাবল ব্যবসা নিয়ে দু’পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নেওয়ায় তাদের ডেকে বিষয়টি মিটমাট করার চেষ্টা করা হচ্ছে। দু’পক্ষের কাগজ পত্র তার কাছে জমা রয়েছে। কাগজপত্র পর্যালোচনা করছেন তিনি।

ব্রেকিং নিউজঃ