| |

অপহরন না করেই অপহরনের নাটক

আপডেটঃ 8:49 pm | March 09, 2017

Ad

ত্রিশাল প্রতিনিধিঃ ময়মনসিংহের ত্রিশালে অপহরন না করেও অপহরনের নাটক সাজিয়ে শিরিন নামের এক মহিলার কাছ থেকে ২০হাজার টাকা হাতিয়ে নিয়েছে প্রতারক বিন আমিন(২৫) নামের এক যুবক। পুলিশ ঘটনার পরপরই মোবাইল ট্রেকিংয়ের মাধ্যমে প্রতারককে আটক করতে সক্ষম হয়।

ত্রিশাল থানা পুলিশ সুত্রে জানাযায়, ত্রিশাল উপজেলার বাসিন্দা শিরিন আক্তার দির্ঘ দিন যাবত ময়মনসিংহ শহরের কেওয়াটখালী এলাকায় বসবাস করে আসছিল। গতবুধবার তার ছেলে সাদিকুল(১৪) স্কুলে গেলে প্রতারক বিন আমিন শিরিন আক্তারকে ফোন করে ছেলেকে অপহরনের কথা বলে ২০ হাজার টাকা দাবী করে এবং অন্য একটি ছেলের কান্নাকাটি শুনায়। টাকা দিলে ছেলেকে ছেড়ে দেবে বলে আস্বস্ত করলে মা শিরিন আক্তার বাসা থেকে ২০ হাজার টাকা এনে অপহরণকারীর দেয়া বিকাশ নাম্বারে প্রদান করেন। পরে শিরিন আক্তারকে ফোন করে জানানো হয় ময়মনসিংহ শহরের ব্রীজ মোড়ে ছেলেকে রেখে এসেছে। শিরিন আক্তার ব্রীজ মোড়ে ছেলেকে খোঁজে না পেয়ে স্কুলে গিয়ে দেখে সেখানে পড়াশোনা করছে। এ ঘটনা তাৎক্ষনিক ত্রিশাল সার্কেল সিনিয়র এএসপি আল আমিনের কাছে আসলে তিনি মোবাইল ট্রেকিং করে রাতেই ত্রিশাল উপজেলার সতেরপাড়া থেকে প্রতারক বিন আমিন(২৫) কে  আটক করতে সক্ষম হয়।

এ ব্যপারে শিরিন আক্তার জানান, আমাকে মোবাইলে ফোন দিয়ে ছেলেকে অপহরনের কথা বলে এবং ছেলের কান্নাকাটি শুনায় তবে আমার সাথে কথা বলতে দেয়া হয়নি। ফোন কাটতে নিষেধ করে আমাকে দ্রুত টাকা দিতে বলে ও ফোন কেটে দিলে মেরে ফেলবে বলে হুমকি দেয়। ভয়ে আমি বিশ হাজার টাকা বিকাশে দিয়ে দিই।

এব্যাপরে ত্রিশাল সার্কেলের এএসপি আল আমিন জানান, অভিনব কায়দায় প্রতারনা শুরু করেছে। অপহরন না করেও নাটক সাজিয়ে টাকা আদায়ের ঘটনায় একদিনের মধ্যে আমরা প্রতারককে আটক করতে সক্ষম হয়েছি। বিষয়টি আরও ক্ষতিয়ে দেখা হচ্ছে।

ব্রেকিং নিউজঃ