| |

ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক রাসেল আব্দুল্লাহর উপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার দাবীতে মহানগর যুবলীগের সাংবাদিক সম্মেলন

আপডেটঃ 9:11 pm | March 09, 2017

Ad

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক রাসেল আব্দুল্লাহর উপর মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার ও তারউপর হামলাকারীদের বিচারের দাবীতে ৯মার্চ সকাল ১১টায় ময়মনসিংহ প্রেসক্লাবে ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের এক সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

জনাকির্ন সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের সদস্য মো: গোলাম মোস্তফা কামাল শামীম। সাংবাদিক সম্মেলনে মহানগর যুবলীগের অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের পক্ষে সাংবাদিক সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে জানান হয়, গত ৬ মার্চ‘১৭ রাত আনুমানিক ১১টায় ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক রাসেল আব্দুল্লাহর এস্কেভটর চালক ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পরিচালনাকারী মো: তুহিন সারাদিন আমদানীর হিসাব নিকাশ করে

মোট ১৫ হাজার ২শত টাকা রাসেল আব্দুল্লাহকে দেওয়ার জন্য তার বাড়ীর কাছাকাছি আসলে কিছু সন্ত্রাসী দা, চাপাতি, হকিস্টিক, লোহার রড ইত্যাদি মারাত্বক অস্ত্রাদি নিয়ে এস্কেভটর চালক ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পরিচালনাকারী মো: তুহিন এর কাছ থেকে ১৫ হাজার ২শত টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায় এবং তার উপর হামলা করে।

এস্কেভেটর ড্রাইভার ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পরিচালনাকারী আহত অবস্থায় রাস্তায় পরে থাকতে দেখে এক পথচারীর মাধ্যমে সংবাদটি জানতে পেরে রাস্তায় গিয়ে রাসেল আব্দুল্লাহ দেখতে পায় উৎপল দাস, বিপ্লব দাস, প্রশান্ত রায়, জাবেদ শেখ আহত তুহিনের পাশে দাড়িয়ে আছে। তুহিন আহত ওয়ার কারন জানতে চাওয়া মাত্রই উৎপল দাস, বিপ্লব দাস, প্রশান্ত রায়, জাবেদ শেখ সহ কয়েকজন রাসেল আব্দুল্লাহর উপর হামলা করে।

রাসেল আব্দুল্লাহ দৌড়ে বাসায় চলে গেলে সন্ত্রাসীরা দা, কুড়াল, লোহার রড, হকিস্টিক ইত্যাদি অস্ত্র নিয়ে তার বাড়ীর গেট ভাংচুর করে ভেতরে প্রবেশ করে বাসার দরজা জানালা ভাংচুর করে। এসময় ভাংচুরের শব্ধে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়। যাওয়ার সময় তারা হুমকি দিয়ে যায় এগিয়ে এলে সবাইকে খুন করে ফেলব।

এই প্রকৃত ঘটনাটি আড়াল করার জন্যই স্বার্থন্বেষী মহল রাজনৈতিক ইসু বানানোর জন্য লিপ্ত রয়েছে। তারা প্রকৃত ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিল করতে চায়।

ব্যাক্তিগত একটি ঘটনাকে বঙ্গবন্ধুর আদর্শে গড়া  যুবলীগের সাথে সম্পৃক্ত করতে চায়। বিশেষ করে ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের মত একটি বৃহৎ সাংগঠনিক দলকে হেয়পতিপন্ন করার জন্য একটি মহল অপচেষ্টা চালাচ্ছে।

আমরা ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের পক্ষ থেকে ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের মত একটি বৃহৎ সাংগঠনিক দলকে হেয়পতিপন্ন করার স্বার্থন্বেষী মহলের অভ্যাহত অপচেষ্টার তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করছি এবং প্রকৃত সত্য ঘটনা সুষ্টু তদন্তের মাধ্যমে তুলে ধরার জন্য পুলিশ, সাংবাদিক সহ আইন প্রয়োগকারী সংস্থার কাছে জোর দাবী জানাচ্ছি।

পাশাপাশি ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: রাসেল আব্দুল্লাহর দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহার করার দাবী জানাচ্ছি। প্রসঙ্গত উল্লেখ থাকে যে, ময়মনসিংহ মহানগর যুবলীগের যুগ্ন আহবায়ক মো: রাসেল আব্দুল্লাহর তার এস্কেভেটর চালক ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পরিচালনাকারী মো: তুহিন এর উপর হামলা, মারধোর ও তার বাসায় হামলা ভাংচুর করায় উৎপল দাস, বিপ্লব দাস, প্রশান্ত রায়, জাবেদ শেখ সহ কয়েকজনের নামে কোতোয়ালী থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

এদিকে রাসেল আব্দুল্লাহ তার ফেইজবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ভধপবনড়ড়শ এ যা কিছু লিখা হয়েছে তা পুরুটা সত্যি নয়।কালিবাড়ীর চিহ্নিত মাদকসেবী ও বিক্রেতা উৎপল ও বিপ্লব আমার এস্কেভেটর চালক ও অন্যান্য ব্যবসা পরিচালনাকারী মোঃ তুহিন কে ৬/০৩/২০১৭ইং তারিখে আনুমানিক রাত্র ১১টার সময় আমার এস্কেভেটর ও অন্যান্য ব্যবসার দৈনিক হিসাব করে আমার বাসার সামনে আসার পরে

উৎপল,বিপ্লব, প্রশান্ত, জাভেদ ও আরো ৫ থেকে ৬ জন তুহিনের পথ আটকে তোর সঙ্গে অবৈধ কিছু থাকতে পারে বলে জোর পূর্বক তার শরীর তল্লাশি করে উৎপল,বিপ্লব, প্রশান্ত, জাভেদ সহ সকলে তুহিনের পকেটে থাকা ১৫২০০ টাকা জোর পূর্বক তাকে মারধর করে ছিনিয়ে নেয় ।

আমার বাসার সামনে ঘটনাটি ঘটার কারণে আমাকে রাস্তার পথচারী বাসায় খবর দিলে আমি ও আমার পরিবারের লোকজন বাসা থেকে বের হয়ে ওদের জিঞ্জাস করা মাত্রই ওরা সকলে অস্ত্রসহ আমার উপর হামলাকরে ঘটনাস্থল আমার বাড়ীর সামনে থাকায় আমি ও আমার পরিবারের লোকজন প্রাণভয়ে দৌড়ে বাড়ীতে আসি।

অস্ত্রসহ উৎপল,বিপ্লব, প্রশান্ত,জাভেদ সহ সকলে আমাদের পেছন পেছন দৌড়ে এসে আমার বাড়ীর গেইট ভাংচুর করে বাড়ীর ভিতর প্রবেশ করে দরজা জনালা ভেঙ্গে দেয়।

এতে ভয়ে আমি ও আমার পরিবারের লোকজন চিৎকার করলে আশেপাশের লোকজন এসে ওদের বাঁধাদেয়। এই ঘটনাটিকে রাজনৈতিক ইস্যু সৃষ্টি করে প্রকৃত ঘটনাকে আড়াল করার অপচেষ্টা চলছে। আমি এর প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি। এই অপচেষ্টার মাধ্যমে মাদকসেবী ও বিক্রেতাদের উৎসাহী করা হচ্ছে। এটাকে রাজনৈতিক ইস্যু না বানিয়ে সুস্থ তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত ঘটনা তুলে ধরার জন্য বিনীত ভাবে অনুরোধ করা হইল।  

 

ব্রেকিং নিউজঃ